সকালে তুলসী পাতা খেলে ওজন কমে | DailyNatunDiganto.Com
মূলপাতা / লাইফ স্টাইল / সকালে তুলসী পাতা খেলে ওজন কমে

নতুন দিগন্ত ডেস্ক

Site Administrator

সকালে তুলসী পাতা খেলে ওজন কমে

৬ নভেম্বর, ২০১৮, ৩:১১

বাড়ির আঙিনায় কিংবা বাসার ছাদে অনেকে তুলসী গাছ লাগিয়ে থাকেন। এটি অত্যন্ত উপকারি উদ্ভিদ। তুলসী পাতার বিভিন্ন উপকারি দিক রয়েছে। আয়ুর্বেদে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয় তুলসী পাতা।চুল এবং ত্বকের চিকিৎসার জন্য,রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করার মতো কাজে তুলসী পাতা কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে।

ভরতের বৈদ্যনাথের ক্লিনিকাল অপারেশনস অ্যান্ড কো-অর্ডিনেশন ম্যানেজার ডা. আশুতোষ গৌতমের মতে,‘তুলসীর তেল কার্যকরিভাবে আমাদের শ্বাসযন্ত্রের উপর কাজ করে।এটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টে সমৃদ্ধ যা চাপ হ্রাস করতে, স্নায়ুকে শান্ত করতে এবং ডায়াবেটিস এবং উচ্চ রক্তচাপের মতো পরিস্থিতি পরিচালনা করতে সহায়তা করে।তুলসীতে লিনোলেইক অ্যাসিড রয়েছে যা চামড়ার জন্য অত্যন্ত উপকারী।

তুলসী পাতা ওজন কমানোর কাজেও সাহায্য করে। ‘১০১ টি ওজন কমানোর টিপস বইটিতে ডা. শিখা শর্মা লিখেছেন, ‘সকালে ৫-৬টি তুলসী পাতা শরীরকে বিষমুক্ত করে।’

যদিও অনেক মানুষই আছে যারা তুলসী পাতা খেতে পছন্দ করে না। তুলসী পাতা পানিতে ডুবিয়ে চা পান করে। কিছু তুলসী পাতা নিয়ে সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রাখুন।সকালে ঘুম থেকে উঠে প্রথমেই এটি পান করুন।আপনার দিন তুলসী চা দিয়ে শুরু করতে পারেন।তুলসীর পাতা এবং কিছু পরিমাণ আদা ফুটন্ত জলে দিয়ে এই চা বানাতে পারেন।

সকালে তুলসী পাতা খেলে কীভাবে তা ওজন হ্রাস করতে পারে দেখে নিন:

বিপাক

তুলসী পাতা আপনার বিপাককে বাড়িয়ে তুলতে পারে।আপনার শরীরের বিপাকীয় হার নির্ধারণ করে সারাদিনে কত পরিমাণ ক্যালোরি পোড়ানো হবে।তুলসীর পাতাগুলি বিপাককে জোরদার করতে সাহায্য করে।যদি আপনার দ্রুত বিপাক হয় তবে আপনি দ্রুত ক্যালোরি বার্ন করতে পারবেন।

বিষাক্ত পদার্থ দূরীকরণ

তুলসী পাতা বা তুলসী চা প্রাকৃতিক ডিটক্স হিসাবে কাজ করে। এটি রক্তকে পরিশোধন করে এবং সব বিষাক্ত জিনিস আপনার শরীর থেকে বের করে দেয়। এরফলেও ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে। গত দিনের বিষক্রিয়া থেকে আপনার শরীরকে পরিষ্কার করে আপনার নতুন দিনকে দুর্দান্তভাবে শুরু করে তুলসী পাতা।

হজম

আয়ুর্বেদ অনুযায়ী, আপনার পাচন তন্ত্রের জন্য আশ্চর্য কাজ করতে পারে আদা ও তুলসী।একটি সুস্থ ও স্বাভাবিক পাচনতন্ত্রই ওজন কমানোর মূল লক্ষ্য। হজমের সমস্যা থাকলে ওজন বৃদ্ধি হতে পারে। কারণ আমরা সঠিকভাবে আমাদের পুষ্টি শোষণ করতে পারি না।বর্জ্য নিষ্কাশন প্রক্রিয়াতেও প্রভাব পড়তে পারে। এটি বিপাকীয় হারকে হ্রাস করতে পারে, যা ক্যালরিগুলোকে সঠিকভাবে পোড়াতে দেয় না। ডা. শিখা তার বইয়ে লিখেছেন যে, সকালে খালি পেটে তুলসীর রস (১৫-২০ টি তুলসী পাতা) কোষ্ঠকাঠিন্যর উপশম করতে পারে!

For Advertisement

01672575878

দৈনিক নতুন দিগন্ত প্রকাশিত-প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত:

error: Content is protected !!